Reproductive Health Blog

Fertility Treatments

ধূমপান কিভাবে পুরুষ এবং মহিলা ফার্টিলিটিকে প্রভাবিত করে

ধূমপান এবং ফার্টিলিটি

বেশির ভাগ মানুষই ধূমপানের ক্ষতিকারক স্বাস্থ্য বিপদ যেমন ক্যান্সার, এমফিসেমা, হৃদরোগের সম্পর্কে জানেন।  একটি তুলনায় কম জানা তথ্য হলো ধূমপান পুরুষ এবং মহিলা প্রজনন স্বাস্থ্যকেও প্রভাবিত করে।  প্রত্যেক ব্যক্তিকে এটা বুঝতে হবে যে তারা তাড়াতাড়ি বা দেরি করে যাই হোক একজন সন্তানের জন্য যখন পরিকল্পনা করছেন, ধূমপান তাদের জনন তন্ত্রের স্বাস্থ্যের সাথে অত্যন্ত আপস করতে পারে। 

 পুরুষ বন্ধ্যাত্বের ওপর ধূমপানের প্রভাব 

 পুরুষ, যারা ধূমপান করেন, সাধারণ ভাবে যারা ধূমপান করেন না তাদের চাইতে কম শুক্রাণু সংখ্যা এবং শুক্রাণু গতিশীলতা থাকে।  এমন কি কিছু গবেষণা এটাও বলছে যে যেসব পুরুষ ধূমপান করেন তাদের জিনগতভাবে অস্বাভাবিক শুক্রাণু উৎপন্ন করার সম্ভাবনা বেশি।  যদি মহিলা সঙ্গিনী গর্ভধারণ করেন, তাহলে সেই জিনগত ক্ষতি উন্নয়নশীল সন্তানের কাছে যাওয়ার বা গর্ভাবস্থার একটি ঝুঁকি হবার সম্ভাবনা অনেক বেশি। 

ধূমপান (অন্যের ধোঁয়া সহ) ইরেকটাইল ডিসফাংকশনের মত যৌন সমস্যা তৈরী করে, ফার্টিলিটিকে পরোক্ষভাবে প্রভাবিত করে। 

 মহিলা বন্ধ্যাত্বের ওপর ধূমপানের প্রভাব 

 মহিলারা, যারা ধূমপান করেন, যারা করেন না তাদের চাইতে গর্ভবতী হতে বেশি সময় নেন।  তাদের কম ইস্ট্রোজেন লেভেল থাকে যা ডিমের উন্নয়ন এবং পূর্ণতা ব্যাহত করে।  এটি জানা রয়েছে যে ধূমপান ফ্যালোপিয়ান টিউব ক্ষতিগ্রস্ত করে সঠিক ডিম্বস্ফোটন রোধ করে এবং ওভারিয়ান রিজার্ভ কমিয়ে দেয়, বিশেষ করে ডিমের মান এবং সংখ্যার হিসাবে। 

 আইভিএফ চিকিৎসা চলছে এমন মহিলাদের ক্ষেত্রে

 ধূমপান আইভিএফ চিকিৎসাধীন মহিলাদের সাফল্যের হার উল্লেখযোগ্য ভাবে কমিয়ে দেয়।  এটি এই কারণে হতে পারে যে ধূমপানের ফলে রক্তনালীর সমস্যা হয় যেটি জরায়ু প্রাচীরে ভ্রূণের রোপন ব্যাহত করে।  যে মহিলারা আইভিএফ চিকিৎসা নিতে চলেছেন তাই পরামর্শ দেওয়া হয় ফার্টিলিটি চিকিৎসা শুরু করার আগে ধূমপান ছেড়ে দেবার জন্য। 

 একটি গর্ভস্থ শিশুর উপর প্রভাব 

এমন কি যদি একজন মহিলা গর্ভবতী হতে সফলও হন, ধূমপানের বাকি ক্ষতিকর প্রভাব তার সন্তানলাভের সম্ভাবনা কমিয়ে দেয়।   এই প্রভাবগুলির মধ্যে রয়েছে:

  • জন্মের সময়ের কম ওজন
  • প্রি ম্যাচিউর জন্ম
  • প্রি-টার্ম জনিত মৃত্যু
  • সাডেন ইনফ্যান্ট ডেথ সিনড্রোমের জন্য মৃত্যু
  • জন্মগত ত্রূটির বর্ধিত ঝুঁকি

এএসএইচ সংস্থার গবেষণা এছাড়াও সুপারিশ করে যে ধূমপানের ফলে গর্ভস্থ শিশুর একটি সুস্থ্য জনন তন্ত্র গঠন হওয়া কমে যায় যার ফলে ভবিষ্যতে পুরুষ/মহিলা সন্তানের কম ফার্টিলিটি থাকতে পারে।  উদাহরণ স্বরূপ, গবেষণা দেখায় যে যেসব মহিলা গর্ভাবস্থার সময় ধূমপান করেছেন ছোট টেস্টিস এবং কম শুক্রাণুর সংখ্যা সহ পুরুষ সন্তান জন্ম দেওয়ার ঝুঁকি বেশি।  যেসব বাবা মা ধূমপান করেন তাদের সন্তানদের শ্বাসকষ্ট জনিত অসুখ যেমন হাঁপানি এবং শ্বাসকষ্ট হবার সম্ভাবনা বেশি। 

ধূমপান ছাড়া সহজ নয় কিন্তু একই সময়ে সেটি অসম্ভব নয়।  আপনি যদি একটি সন্তানের পরিকল্পনা করছেন, তাহলে এটি শুধু পরামর্শ নয় এটি অপরিহার্য যে আপনি কম করুন এবং অবশেষে ধূমপান বন্ধ করুন।  হয়তো এর জন্য আপনার দিক থেকে অনেক প্রচেষ্টা এবং শৃঙ্খলা দরকার হবে কিন্তু কোনো কিছু সেই আনন্দের সাথে তুলনা হয় না যা আপনি অনুভব করবেন যখন আপনি প্রথমবার আপনার কোলে আপনার সন্তানকে নেবেন।

Facebook
Twitter
LinkedIn
Pinterest

Leave a Reply

Your email address will not be published.