Reproductive Health Blog

Fertility Treatments

পুরুষের বন্ধ্যাত্ব চিকিৎসায় বীর্য বিশ্লেষণের গুরুত্ব

সন্তানলাভে সমস্যা বর্তমান সময়ে একটি সাধারণ সমস্যা।  একটানা গর্ভপরীক্ষার নেতিবাচক ফলাফলকে আপনাদের হতাশ করতে দেবেন না।   ডাক্তাররা তরুণ দম্পতি যারা তাদের কুড়িতে বা তিরিশের প্রথমে আছেন একবছরের জন্য স্বাভাবিক ভাবে চেষ্টা করতে বলেন।  গর্ভাবস্থা একটি জটিল বিষয় এবং শুধুমাত্র একজন মহিলার মাসিক চক্রের ফার্টিলিটি উইন্ডোতে হয়।  আপনি হয়তো একদম প্রথম চেষ্টায় গর্ভবতী নাও হতে পারেন, কিন্তু এক বছর ধরে স্বাভাবিক ভাবে চেষ্টা করার পরেও যদি আপনারা গর্ভধারণ করতে না পারেন, তাহলে সেটি একটি চিন্তার বিষয়। 

বছরের পর বছর ধরে, আমরা আরও অনেক দম্পতিকে তাদের ফার্টিলিটি সমস্যা নিয়ে কথা বলতে দেখেছি।  তারা সক্রিয়ভাবে তাদের প্রজনন স্বাস্থ্য সম্পর্কে বিশেষজ্ঞ সাহায্য চাইছেন।  এটি আর বন্ধ দরজার ওপারের বিষয় নয়।  নোভা আইভিএফ ফার্টিলিটিতে, উন্নত প্রযুক্তি এবং আন্তর্জাতিকভাবে প্রশংসিত এই শিল্পের শ্রেষ্ট ফার্টিলিটি বিশেষজ্ঞদের চমৎকার দিক নির্দেশনার মাধ্যমে আপনার গর্ভবস্থার সেরা সুযোগটি পান।  এই ব্লগে, আমরা কিছু নির্দেশাবলী নিয়ে আলোচনা করবো যা আপনাকে সিদ্ধান্ত নিতে সাহায্য করবে কখন আপনাদের একজন ফার্টিলিটি বিশেষজ্ঞের  সাথে যোগাযোগ করা উচিত। 

বয়স ফ্যাক্টর

আপনি যদি 35 বছরের কম হন, এবং স্বাভাবিক ভাবে 12 মাসের বেশি সময় ধরে গর্ভবতী হবার চেষ্টা করছেন, এখন আপনাদের একজন ফার্টিলিটি বিশেষজ্ঞের সাথে দেখা করা উচিত।  এশিয়ান মহিলাদের, ওভারিয়ান রিজার্ভ সাধারণত 35 বছর বয়স থেকে দ্রুত কমতে শুরু করে।  বয়সের সাথে সাথে, একজন এমনিতে সুস্থ মহিলার এগ রিজার্ভ কমতে শুরু হয় এবং 40-45 বছর বয়সে সম্পূর্ণ শেষ হয়ে যায় যার ফলে মেনোপজ হয়। 

যদি আপনি 35 বছরের বেশি বয়সী হন এবং ছয় মাস বা তার বেশি সময় ধরে স্বাভাবিক ভাবে গর্ভবতী হবার চেষ্টা করে আসছেন এবং ব্যর্থ হচ্ছেন,  অবিলম্বে একজন ফার্টিলিটি বিশেষজ্ঞের  কাছে যান।  35 বছরের বেশি বয়সী মহিলাদের গর্ভাবস্থার সুযোগ কম এমনকি সহায়ক প্রজনন প্রযুক্তির মাধ্যমেও, কারণ বেশি বয়সে ডিমগুলি সেরা মানে থাকে না।  বয়সের সাথে সাথে, অন্যান্য জটিলতাও দেখা দেয় যার ফলে ওভারিয়ান রিজার্ভ কমে যায়। 

স্বাস্থ্য ফ্যাক্টর

কিছু স্বাস্থ্যের অবস্থা রয়েছে যা মহিলাদের ফার্টিলিটি সম্ভাবনার ওপর বিরূপ প্রভাব ফেলে।  মহিলাদের থাইরয়েড সমস্যা থেকে হরমোনের ভারসাম্যের সমস্যা হতে পারে।  এটি জানা গেছে যে মহিলারা যারা থাইরয়েডের সমস্যায় ভোগেন তাদের বন্ধ্যাত্ব, মিসক্যারেজ, ভ্রূণের মস্তিষ্কের গঠনের অস্বাভাবিকতা ইত্যাদি সমস্যা দেখা দিতে পারে।  তবে, যদি থাইরয়েডের সমস্যা চিহ্নিত হয় এবং রোগিনী ওষুধ খান, তাহলে সেই মহিলা ফার্টিলিটি চিকিৎসার মাধ্যমে গর্ভধারণ করতে পারেন।  এই চিকিৎসার প্রক্রিয়ার সময়, এটি পরামর্শ দেওয়া হয় যে আপনি আপনার ফার্টিলিটি বিশেষজ্ঞের সাথে নিয়মিত যোগাযোগ করবেন। 

মহিলারা যারা পিসিওএস বা এন্ডোমেট্রিওসিসে ভুগছেন যখন তারা গর্ভধারণের সিদ্ধান্ত নেবেন তাদের ফার্টিলিটি বিশেষজ্ঞের সাথে যোগাযোগ করার পরামর্শ দেওয়া হয়।  এন্ডোমেট্রিওসিস থেকে অস্বাস্থ্যকর শ্রোণী পরিবেশ তৈরী হয় যার মধ্যে ক্ষতিগ্রস্ত টিউব এবং দুর্বল ডিম্বাশয় থাকে, যার ফলে স্বাভাবিক গর্ভধারণের সম্ভাবনা কমে যায়। 

ধরা না পড়া ফার্টিলিটি সমস্যাও আরেকটি কারণ হতে পারে একজন ফার্টিলিটি বিশেষজ্ঞের সাথে দেখা করার জন্য।  এই ক্ষেত্রগুলিতে, যে উপসর্গগুলির দিকে নজর রাখতে হয় তা হলো, অনিয়মিত মাসিক, শ্রোণী অঞ্চলে ব্যাথা, মাসিকের অনুপস্থিতি এবং অতীতে হওয়া একাধিক মিসক্যারেজ।  যদি আপনার এই রকম কোনো উপসর্গ আছে, তাহলে আর সময় নষ্ট না করে একজন ফার্টিলিটি বিশেষজ্ঞের সাথে দেখা করার পরামর্শ দেওয়া হয়। 

যে মহিলারা দীর্ঘস্থায়ী রোগে ভুগছেন যেমন কিডনির সমস্যা, উচ্চ রক্তচাপ এবং ক্যান্সার, জিনগতভাবে জড়িত অবস্থা যেমন ডায়াবেটিস, আলজাইমার ডিজিজ ইত্যাদি, তাদের পরামর্শ দেওয়া হয় একটি সুস্থ গর্ভাবস্থা পাবার জন্য একটি চিকিৎসার পরিকল্পনার জন্য একজন ফার্টিলিটি বিশেষজ্ঞের সাথে যোগাযোগ করতে। 

পুরুষ ফ্যাক্টর

বন্ধ্যাত্ব একা একটি মহিলার সমস্যা নয়।  40-45% সব বন্ধ্যাত্বের ক্ষেত্রে পুরুষ ফ্যাক্টর পাওয়া যায়।  পুরুষদের ক্ষেত্রে, বন্ধ্যাত্ব সাধারণত দেখা যায় খারাপ শুক্রাণু ফ্যাক্টরের জন্য যা হতে পারে সংযুক্ত অবস্থা যেমন ক্যান্সার বা ক্যান্সারের চিকিৎসা, টেস্টিকুলার বা শ্রোণীর আঘাত, ভেরিকোসিল, ডায়াবেটিস, স্থূলতা ইত্যাদি কারণে।  তবে অনেক ক্ষেত্রেই, কোনো অন্তর্নিহিত কারণ খুঁজে পাওয়া যায় না।  সবসময় সঠিক প্রাথমিক মূল্যায়নের অংশ হিসাবে একটি বীর্য বিশ্লেষণ করা দরকার, যাতে সেই মত পরবর্তী চিকিৎসার বিকল্প সিদ্ধান্ত নেওয়া যায়। 

ইরেকটাইল ডিসফাংকশন এবং প্রিম্যাচিউর এজাকুলেশনের মত সমস্যাও গর্ভধারণে সমস্যা করতে পারে এবং এবং সেগুলি সাধারণত যৌন বিশেষজ্ঞ এবং মনোবিজ্ঞানীদের দ্বারা সুরাহা হয়।  যে কোনো ধরণের সংক্রমণ বা যৌন সংক্রমণ (এসটিআই) অবিলম্বে চিকিৎসা করা উচিত, কারণ তারা শুক্রাণুর সংখ্যা এবং মানের ওপর প্রভাব ফেলে।  যদি এই ফ্যাক্টরগুলির কোনটি আপনার বা আপনার সঙ্গীর ওপর প্রযোজ্য হয়, অবিলম্বে একজন ফার্টিলিটি বিশেষজ্ঞের সাথে যোগাযোগের পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে।  ফার্টিলিটি চিকিৎসা যেমন আইভিএফ এবং আইসিএসআই পুরুষ বন্ধ্যাত্বে সাহায্য করে। 

পুরুষ এবং মহিলাদের বন্ধ্যাত্ব অনেক কারণে হতে পারে, তাই এটি পরামর্শ দেওয়া হয় যে কারো অপেক্ষা করা এবং ঘরোয়া টোটকা ব্যবহার করা উচিত নয় কারণ বয়স গর্ভবতী হবার ক্ষেত্রে একটি গুরুত্বপূর্ণ ফ্যাক্টর।  এটি সময়ের বিরুদ্ধে লড়াই এবং তাই, যত তাড়াতাড়ি আপনারা ফার্টিলিটি বিশেষজ্ঞের কাছে যাবেন, আপনাদের পক্ষে তত ভালো।

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn
Share on google
Google+
Share on pinterest
Pinterest

Leave a Reply

Your email address will not be published.